• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

বিএনপির ক্যাম্প ফাঁকা, সাখাওয়াত চলে গেছেন আগেই

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট, নারায়ণগঞ্জ
|  ২২ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩:১৩ | আপডেট : ২২ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩:২২
ফাঁকা পড়ে আছে বিএনপি দলীয় মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খানের অস্থায়ী মিডিয়া সেলটি। হতেগোনা কয়েকজন কর্মী ছাড়া সেখানে আর কেউ নেই। তবে উৎসব চলছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের বিজয়ী প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর বাড়ির সামনে।

যদিও নগরীর চাষাঢ়া এলাকায় নির্মাণাধীন আদালত ভবনের সামনে অবস্থিত সাখাওয়াত হোসেনের মিডিয়া সেল সারাদিনই উৎসবমুখর ছিল। ভোট শেষে সেখানে আসেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার, মেয়রপ্রার্থী সাখাওয়াত হোসেন ও সিনিয়র নেতারা।

সন্ধ্যার পর তৈমুর আলম খন্দকার নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে নগরীর কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রও পরিদর্শন করেন। সাংবাদিকরা তখন নির্বাচনী ফল সম্পর্কে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি কিছুই বলতে রাজি হননি। কিছুক্ষণ পর মিডিয়া সেলে ফিরে আসেন তিনি। সাংবাদিকদের তৈমুর বলেন, ‘বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে আমাদের কাছে ফলাফল আসছে। বিএনপি প্রার্থী বিপুল ভোটে এগিয়ে রয়েছে।’ কিন্তু পরে তা উল্টোটাই দেখা গেলো।  

একইভাবে বিএনপি প্রার্থী অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন মিডিয়াকে এড়িয়ে যান। শুধু বলেন, ‘সন্ধ্যার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলবো।’ কিন্তু তিনি কোনো কথা না বলে পরাজয় নিশ্চিত জেনে মিডিয়া সেল ছেড়ে যান।

এদিকে সব রাস্তার জনস্রোত এসে মিশেছে চুনকা বাড়ির দিকে। নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের সামনেও আইভী সমর্থকদের উল্লাস করতে দেখা গেছে। রাতে কেন্দ্রে কেন্দ্রে ফল প্রকাশের সঙ্গে আনন্দ উল্লাসে মেতে ওঠেন সমর্থকরা। জয়ের আভাস পেয়ে সন্ধ্যার পর থেকেই শহরের পাইকপাড়া দেওভোগে সেলিনা হায়াৎ আইভীর বাড়ির সামনে ভিড় করেন লোকজন। মেতে ওঠেন উৎসবের আমেজে। সেই সঙ্গে চলে বাদ্যবাজনা, বিজয় স্লোগান আর আতশবাজি। নানান আলোকসজ্জায় সাজানো হয় আইভীর বাড়ির আশপাশ।

নিশ্চিত জয় জেনে রাত সোয়া ৯টার দিকে বাসা থেকে বেরিয়ে জনতার মাঝে নামেন আইভী। এ সময় উল্লসিত জনতা তাকে অভিনন্দন জানাতে থাকলে হাসিমুখে বিজয় চিহ্ন দেখান তিনি। গণমাধ্যম কর্মীরাও তাকে ঘিরে কথা বলতে চাইলেও হাসিমুখে ফিরিয়ে দেন। ফিরে যান বাড়ির ভিতর।

কিছুক্ষণ পর বেরিয়ে এসে আইভী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আসলে এ অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। এ বিজয় আমাদের সবার বিজয়। এ মাসে আমাদের বিজয় এসেছিল। আমি আগেই বলেছিলাম, এ ডিসেম্বরে আরেকটি বিজয় আসবে, তা হবে নৌকার বিজয়। এ বিজয় আমি উৎসর্গ করতে চাই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ও সব মুক্তিযোদ্ধাকে। যারা এখনো আছেন, যেসব মুক্তিযোদ্ধা আমাকে সর্বক্ষণ সমর্থন যুগিয়েছেন আমি তাদেরকেও এ বিজয় উৎসর্গ করছি।’

কোনো বিষয়ে শামীম ওসমানের সহযোগিতা চাইবেন কি না? এক সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে আইভী বলেন, ‘আমি অবশ্যই উনার পরামর্শ নেবো। উনার সহযোগিতা চাইবো। আমার কথা অনুযায়ী, উনি যদি অনুমতি দেন, তাহলে আমি সকালে উনার বাসায় যেতে চাই; উনার সঙ্গে নাস্তা করতে চাই।’

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় ভোট শুরু হয়ে শেষ হয় বিকেল ৪টায়। আর রাত সাড়ে ৯টার মধ্যেই ১৭৪টি কেন্দ্রের সবগুলোর প্রাথমিক ফলাফল পাওয়া যায়। এতে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী সাখাওয়াত হোসেন খানকে ৭৭ হাজার ৯০২ ভোটে পরাজিত করেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী। নৌকা প্রতীকে তিনি পান ১ লাখ ৭৬ হাজার ৮২৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে সাখাওয়াত হোসেন খান পান ৯৬ হাজার ৬৭৪ ভোট।

এস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়