• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

শেষ সময়ে লক্ষ্মীর খোঁজে আইভী-সাখাওয়াত

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০:০০ | আপডেট : ২১ ডিসেম্বর ২০১৬, ১১:৩৫
নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণার শেষ মুহূর্তে ‘ভোট নামের লক্ষ্মীর’ খোঁজে ব্যস্ত সময় পার করছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনের প্রার্থীরা। আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ঠিক রাখতে সোমবার বিকেল থেকে টহলে নেমেছে বিজিবি। জোরদার করা হয়েছে পুলিশ, র‌্যাবসহ বিভিন্ন বাহিনীর তৎপরতা।

আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থী ডাক্তার সেলিনা হায়াৎ আইভী মঙ্গলবার সকালে নিজ এলাকা ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে গণসংযোগ করেন। অন্যদিকে, বিএনপি মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান নিজ এলাকা ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে গণসংযোগ করেন। এসময় দু’জনেই নির্বাচন যেন অবাধ ও সুষ্ঠু হয় সে বিষয়ে প্রশাসনকে আহ্বান জানান।

নাসিক নির্বাচন প্রসঙ্গে দুপুরে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ নাসিক নির্বাচনে অংশ নিয়েছে। নির্বাচনের রেজাল্ট পাবেন। নারায়ণগঞ্জে নৌকার পালে যে হাওয়া লেগেছে, সেটা এখন সবার মুখে মুখে। এমনটি হচ্ছে আমাদের প্রার্থীর জনপ্রিয়তা, বর্তমান সরকারের উন্নয়নের জোয়ার এবং দলের সাংগঠনিক শক্তির কারণে। এ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভীই জয়ী হবে।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রীর পরিস্কার নির্দেশনা আছে; নির্বাচন ফ্রি অ্যান্ড ফেয়ার হতে হবে। আমিও বলছি, আমরা অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য স্বাধীন ও কর্তৃত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনে কমিশনকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করবো। ইলেকশন ফ্রি অ্যান্ড ফেয়ার হলে নৌকাই বিজয়ী হবে ইনশাআল্লাহ। মানুষ যাকে খুশি তাকে ভোট দেবে। এটাই আমাদের নেত্রীর নির্দেশ।

এর আগে সকালে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেন, খালেদা জিয়াকে নাসিক নির্বাচনে জনসংযোগে অংশ নিতে না দেয়া পরিকল্পিত। তার নারায়ণগঞ্জ যাওয়াকে কেন্দ্র করে বিএনপি নেতারা সার্বিক প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিলেন। নির্বাচনে তিনি কোন কোন এলাকায় গণসংযোগ চালাবেন সেই ম্যাপও প্রস্তুত ছিল। কিন্তু হঠাৎ করে বহিরাগতদের প্রচারণার বিষয়ে নির্বাচন কমিশন ৭২ ঘণ্টার সময়সীমা বেঁধে দেয়ায় খালেদা জিয়ার পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেয়া সম্ভব হলো না।

তিনি আরো বলেন, এর আগে যেকোনো নির্বাচনে ভোটের ৪৮ ঘণ্টা আগে বাইরে থেকে যাওয়া রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের এলাকা ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হতো। এটাই ছিল আইন। কিন্তু এবার সেই সময়সীমা বাড়িয়ে ৭২ ঘণ্টা করা হলো। খালেদা জিয়া বিএনপি প্রার্থীর পক্ষে প্রচারে অংশ নিলে আরো ব্যাপক গণজোয়ার সৃষ্টি হবে ভেবেই সরকার ইসিকে দিয়ে এ পরিপত্র জারি করিয়েছে।

এদিকে, জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনে নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েনে দাবি করেন বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু।

কে/ডিএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়