• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

বাংলাদেশকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেয় ভারত

আতিকা রহমান
|  ০৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ১০:৫৪ | আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯:৫০
বাঙালির মুক্তিসংগ্রামের ইতিহাসে এক উজ্জ্বল দিন ৬ ডিসেম্বর। একাত্তরের এদিনে বাংলাদেশকে স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয় ভারত। 

মুক্তিযুদ্ধে সহায়তার জন্য মিত্রশক্তি ভারতীয় জওয়ানদের অভিনন্দন জানিয়ে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম। এদিন যশোর সেনানিবাস দখলে নেয় মুক্তিযোদ্ধারা, শত্রুমুক্ত হয় ফেনী।  

বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে বাংলার দামাল ছেলেরা। আকাশে-বাতাসে গুঞ্জন, যে কোনো মুহূর্তে স্বাধীন হবে পূর্ব বাংলা। ১৯৭১ সালের এদিনে ভুটানের পর একটি স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেয় ভারত। যুদ্ধ চলাকালে ভারতের স্বীকৃতি মুক্তিযোদ্ধাদের প্রচণ্ডভাবে মানসিক শক্তি যোগায়। 

ভারতের লোকসভায় ইন্দিরা গান্ধী বাংলাদেশকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতির ঘোষণা দেন। স্বীকৃতির জন্য মুজিবনগর সরকারও ধন্যবাদ জানায় ভারত সরকারকে। 

সারাদেশে বাঙালির মরণপণ সংগ্রাম আরো জোরদার হয়। আখাউড়ায় দখলদারদের হটিয়ে দেয় বীর মুক্তিবাহিনী। একের পর এক এগিয়ে চলে মুক্তিসেনাদের বিজয়যাত্রা। 

এদিনেই পূর্বাঞ্চলে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর বিমান তৎপরতা সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত করে দেয় মিত্রবাহিনী।  

দশম ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের অধিনায়ক যুদ্ধকালীন মেজর জাফর ইমাম বীরবিক্রমের নেতৃত্বে দশম ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট ও সবস্তরের মুক্তিযোদ্ধারা বিজয়ের পতাকা নিয়ে ফেনী শহরে প্রবেশ করে। ৬ ডিসেম্বর মুক্ত হয় ফেনী।

এম

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়