• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

নতুন আইনে দুর্নীতিবাজ কর্মচারীরা ছাড় পাবে না: দুদক চেয়ারম্যান

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৭ আগস্ট ২০১৮, ১৫:৩৩ | আপডেট : ২৭ আগস্ট ২০১৮, ১৫:৪১
দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন-দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) স্বাধীন প্রতিষ্ঠান। এটা কারও হস্তক্ষেপে চলে না। যে কোনও সিদ্ধান্ত স্বাধীনভাবে নিতে পারে। তাই নতুন আইনে সরকারি দুর্নীতিবাজ কর্মচারীরা ছাড় পাবে না

আজ সোমবার সকালে সাংবাদিকদের সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়কালে মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনুমোদিত সরকারি কর্মচারী আইন নিয়ে প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ কথা বলেন।

ইকবাল মাহমুদ আরও বলেন- আইন যা-ই হোক, সরকারি দুর্নীতিবাজ কর্মচারীদের রক্ষা পাওয়ার কোনও সুযোগ নাই। দুর্নীতিবাজদের রক্ষা করার কোনও আইন কিন্তু হয় না। যেসব অসৎ ও দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা রয়েছে তারা এই আইনের কারণে ছাড় পেয়ে যাবে ব্যাপারটা তেমন না। নতুন আইনে সরকারি দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের বিচারের আওতায় আনা যাবে।

তিনি বলেন- ‘আপনাদের স্পষ্টভাবে বলতে চাই, যতক্ষণ পর্যন্ত দুদক একটি স্বাধীন সংস্থা হিসেবে রয়েছে, ততদিন দুদক কারও অনুমতি নিয়ে কোনও কাজ করবে না।’
-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন :  শিশু রাইফার মৃত্যু: ৪ চিকিৎসকের জামিন
-------------------------------------------------------

গত ২০ আগস্ট মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে ‘সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮’-এর খসড়া অনুমোদন দেয়া হয়। এতে বলা হয়েছে, ফৌজদারি ও দুর্নীতির মামলায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের গ্রেপ্তার করতে সরকারের পূর্বানুমতির প্রয়োজন হবে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সেদিন বলেছিলেন- ‘ছয়টি বিধিমালা দ্বারা সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ, পদোন্নতি, পদায়ন, শৃঙ্খলাবিধিসহ আনুষঙ্গিক কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। এ-সংক্রান্ত কোনও পূর্ণাঙ্গ আইন নেই। সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা ও পূর্ণাঙ্গ আইনের প্রয়োজনীয়তা সাপেক্ষে নতুন আইনটি করা হচ্ছে।’

প্রস্তাবিত আইনের ৪১ ধারা উল্লেখ করে শফিউল আলম জানান- সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা হলে অভিযোগপত্র দেয়ার আগে সরকারের অনুমোদন ছাড়া তাকে গ্রেপ্তার করা যাবে না।

সচিব আরও জানান, দুর্নীতি দমন কমিশন আইনেও কারও বিরুদ্ধে মামলা হলে অভিযোগপত্র দেয়ার আগে সরকারের অনুমোদন লাগবে।

আরও পড়ুন : 

আরসি/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়