ঈদের ছুটিতে রাজধানীর দুই বাড়িতে দুর্ধর্ষ চুরি

প্রকাশ | ২৫ আগস্ট ২০১৮, ২১:২৯ | আপডেট: ২৬ আগস্ট ২০১৮, ১২:৪৬

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

ঈদের ছুটিতে রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা ও ইন্দিরা রোডের দুটি বাড়িতে দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে। দুটি বাসার অধিবাসীরা সপরিবারে ঈদের ছুটি কাটাতে বাসা তালাবদ্ধ করে গ্রামের বাড়িতে গিয়েছিলেন। আজ শনিবার এসে দেখেন বাসা তছনছ, গ্রিল কাটা। মূল্যবান ইলেকট্রনিক ডিভাইস, সোনার গয়না, টাকা-পয়সা, দামি শাড়িসহ মূল্যবান জিনিসপত্র সব নিয়ে গেছে। এমনকি বাদ যায়নি শিশুদের মাটির ব্যাংকও। মাটির ব্যাংকে শিশুদের জমানো টাকাও নিয়ে গেছে চোরচক্র।

রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় এফ-ব্লকের ২৩ নম্বর রোডের একটি বাসায় থাকেন রাফাত মোস্তফা আপন। আজ শনিবার সকালে ঈদের ছুটি শেষে বাসায় ঢুকে তছনছ অবস্থা দেখে তিনি হতবিহ্বল হয়ে ভাটারা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-৩৬।

-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : নাটোরে বাস-লেগুনা সংঘর্ষ, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৪
-------------------------------------------------------

রাফাত মোস্তফা আপন আরটিভি অনলাইনকে বলেন- মূল্যবান ইলেকট্রনিক ডিভাইস, সোনার গয়নাসহ বাচ্চাদের মাটির ব্যাংকও বাদ রাখেনি চোররা। বাসার পিছনের বারান্দার গ্রিল কেটে এবং বারান্দার দরজার লক ভেঙে তারা বাসায় ঢুকে সব লণ্ডভণ্ড করে রেখে যায়। হারিয়ে যাওয়া জিনিসের মূল্য প্রায় ১২ লাখ টাকা।

তিনি আক্ষেপ করে বলেন-পর্যাপ্ত নিরাপত্তাকর্মী থাকার পরও কীভাবে এমন চুরির ঘটনা ঘটলো, সেটাই প্রশ্ন। বাসার সব ঘরই তারা তছনছ করেছে। আলমারিতে রাখা দুটি ল্যাপটপ, স্টাডি রুম থেকে পাঁচভরি স্বর্ণের গহনা ছাড়াও দুটি ডিএসএলআর ক্যামেরা যার আনুমানিক মূল্য ১ লাখ ১৫ হাজার টাকা এবং একটি ডিজিটাল ক্যামেরা যার মূল্য ২০ হাজার টাকা নিয়ে গেছে।

রাজধানীর ইন্দিরা রোডে অপর এক ব্যবসায়ীর বাসার বারান্দার গ্রিল কেটে দুর্ধর্ষ চুরি হয়েছে। ইন্দিরা রোডের ৭৫/এ/৪ নম্বর বাড়ির দ্বিতীয়তলার ফ্ল্যাটে এই চুরির ঘটনা ঘটে। ঈদ শেষে গ্রামের বাড়ি থেকে আজ শনিবার দুপুরে এসে বাসা তছনছ অবস্থা দেখেন।

বাড়ির মালিক একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান মো. রাজীব জানান, ঈদের ছুটিতে আমি সপরিবারে গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জে গিয়েছিলাম। বাসা তালাবদ্ধ অবস্থাতেই ছিল। শনিবার দুপুরে আমরা বাসায় ফিরে তালা খুলে ভেতরে ঢুকে দেখি বেডরুমসহ দুটি কক্ষের মেঝেতে জিনিসপত্র সব ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে।

তিনি আরও বলেন, দুটি আলমারি, একটি ওয়ারড্রবসহ রান্নাঘরের বিভিন্ন ঘরের জিনিসপত্র তারা তছনছ করে রেখেছে। বারান্দার গ্রিলের একপাশের অংশ কাটা ছিল। ধারণা করছি, তারা গ্রিল কেটেই ভেতরে প্রবেশ করেছে। বেডরুমের জানালার গ্রিলও কাটা অবস্থায় পাওয়া গেছে। দুই আলমারি থেকে প্রায় ২৫ ভরি স্বর্ণ ও ৫ লাখ টাকা চুরি হয়েছে।

শেরে-বাংলা নগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জি জি বিশ্বাস  বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। মামলার প্রক্রিয়া চলছে। মামলা হলে আমরা তদন্ত কাজ শুরু করব।  

আরও পড়ুন :

আরসি/পি