• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

মহাসড়কেও ফিটনেসবিহীন গাড়ি চলতে দেয়া হবে না : আইজিপি

অনলাইন ডেস্ক
|  ১৩ আগস্ট ২০১৮, ১২:৩৭ | আপডেট : ১৩ আগস্ট ২০১৮, ১৭:২৩
শুধু রাজধানী ঢাকা নয়, দেশের মহাসড়কগুলোতেও ফিটনেসবিহীন গাড়ি চলতে দেয়া হবে না। এজন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষকারী বাহিনীর কঠোর নজরদারি থাকবে। বললেন মহাপুলিশ পরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

আজ(সোমবার)পুলিশ সদরদপ্তরে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে আইজিপি আসছে ঈদ ও সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে পুলিশের পদক্ষেপ ও তৎপরতার কথা তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, ট্রাফিক আইনের কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করায় ফিটনেসবিহীন গাড়ি ঢাকার রাস্তায় নামতে দেয়া হচ্ছে না। বৈধ কাগজপত্র ও চালকের লাইসেন্স যাচাই করা হচ্ছে।

-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন  : শহিদুলের চিকিৎসার আদেশ আপিলে বহাল
-------------------------------------------------------

জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, মহাসড়কেও যেনো ফিটনেসবিহীন গাড়ি না চলে, সেই নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। গাড়ির যাবতীয় কাগজপত্র বাছাই করতে বলা হয়েছে।

পুলিশের মহাপরিদর্শক বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব রটনাকারীদের কোনও ছাড় দেয়া হবে না। শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলাকালে যারা গুজব ছড়িয়েছে তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব বন্ধে সাইবার অপরাধ মনিটরিং এর জন্য আমরা কেন্দ্রীয়ভাবে সেল মনিটরিং জোরদার করছি। সেই সঙ্গে ফেইসবুকে ফেইক আইডিগুলো চিহ্নিত করা হচ্ছে। বেশ কিছু আইডি ইতোমধ্যে ব্লক করা হয়েছে।

আইজিপি বলেন, গুজব ছড়ানোর ঘটনায় এ পর্যন্ত ২১টি মামলা হয়েছে এবং ২৯টি অনলাইন পোর্টালকে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়ার বিষয়ে জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, ‘পলাতকদের মধ্যে দুজনের অবস্থানের তথ্য আমাদের কাছে আছে। তাদের একজন যুক্তরাষ্ট্র এবং আরেকজন কানাডায় আছেন।

তিনি বলেন, ১৫ আগস্ট শোক দিবসকে কেন্দ্র করে কোনও ধরনের নাশকতার আশঙ্কা নেই। তবুও সর্বোচ্চ নিরাপত্তায় গোয়েন্দা নজরদারি রয়েছে। এজন্য নিরাপত্তায় কোনো কমতি নেই। এ মাসে সব অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে সজাগ থাকবে পুলিশ।

এক প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, ছাত্র আন্দোলনের সময় সাংবাদিকদের ওপর হামলাকারীদের ধরতে ইতোমধ্যে ঢাকা মেট্রোপলিটনের গোয়েন্দা পুলিশের এডিশনাল কমিশনারকে নিয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি প্রয়োজনীয় তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করছে। তাদের সুপারিশের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, ঈদের ছুটিতে ঢাকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও বাড়ানো হবে। ঈদ উপলক্ষে যারা রাত্রিকালীন যাত্রা করবেন তাদেরকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেয়া হবে। গতবারের মত এবারও ঈদে অজ্ঞান পার্টি ও মলম পার্টির বিরুদ্ধে গোয়েন্দা নজরদারী রয়েছে।

এদিকে, রাজধানীতে ট্রাফিক সপ্তাহের অষ্টম দিনে (রোববার) ট্রাফিক আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করে ৩২৮৫ টি মামলা করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে ৪৭ টি মোটর সাইকেল।

ট্রাফিক বিভাগ সূত্রে জানানো হয়, ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকায় ৮৭৬টি, গাড়ির ফিটনেস না থাকার কারণে ২১১টি, ট্রাফিক আইন অমান্য করার কারণে ১৬৬৭ টি মোটরসাইকেলের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। গাড়ি চালানোর সময় মোবাইলফোন ব্যবহার করায় ১ ভিডিও এবং ১৫টি সরাসরি মামলা দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও, উল্টোপথে গাড়ি চালানোর কারণে ৩৩০ টি, হাইড্রোলিক হর্ণ ব্যবহার করার দায়ে ৯০টি, হুটার ও বিকন লাইট ব্যবহার করার জন্য ২৯ টি, মাইক্রোবাসে কালো গ্লাস ব্যবহার করার জন্য ১৮ টি ও বিভিন্ন স্টিকার ব্যবহার করার জন্য ১টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন  : 

জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়