• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫

মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি ভাড়া নিয়ে দখল করেছিলেন প্রিন্স মুসা

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ৩১ জুলাই ২০১৮, ২০:১৭ | আপডেট : ৩১ জুলাই ২০১৮, ২০:৩২
মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক শিক্ষা ও সংস্কৃতিমন্ত্রী মরহুম অধ্যাপক ইউসুফ আলীর বাড়ি ভাড়া নিয়ে দখল করে আসছিলেন বিতর্কিত ব্যবসায়ী মুসা বিন শমসের। 

দখল বাড়িটি উদ্ধারে দীর্ঘ ১৬ বছরের মামলা চলার পর আজ মঙ্গলবার অধ্যাপক ইউসুফ আলীর ওয়ারিশগণের কাছে বাড়িটি বুঝিয়ে দেয় আদালত। 

মামলার বিবরণী থেকে জানা যায়, তৎকালীন ডিআইটি বর্তমান রাজউক কর্তৃক ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক গুলশান হাল বনানী থানাধীন ব্লক আই এর ১ নম্বর রোডের ৫৭ নম্বর প্লটটি ৯৯ বছরের জন্য বরাদ্দ প্রদান করা হয়। পরে মরহুম অধ্যাপক ইউসুফ আলী প্লটটিতে কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নিয়ে একটি দুই তালা ভবন করেন। পরে ভবনটি ভাড়াচুক্তির মাধ্যমে ১৯৯৬ সালের ১ অক্টোবর হতে ৩০ নভেম্বর ১৯৯৯ পর্যন্ত তিন বছরের জন্য মুসা বিন সমশেরকে ভাড়া প্রদান করেন। পরে মাসিক নিদিষ্ট ভাড়া নিয়মিত পরিশোধ না করে ভাড়া চুক্তির শর্ত লঙ্ঘন করায় প্রচুর পরিমাণ ভাড়া বকেয়া পড়ে যায়। 

আরও জানা যায়, অধ্যাপক ইউসুফ আলী ১৯৯৮ সালের ৩ ডিসেম্বর মারা যান। পরে ইউসুফ আলীর ওয়ারিশ বকেয়া ভাড়া পরিশোধ করে বাড়ি খালি করতে বার বার তাগিদ দেন। কিন্তু বাড়ি খালি না করে ইউসুফ আলীকে বারবার হয়রানি করে বাড়িটি দখল করা হয়। পরে ইউসুফ আলী ক্ষয়ক্ষতি পরিশোধ ও বাড়ি ছেড়ে দেয়ার জন্য মুসা বিন সমশেরকে একটি লিগ্যাল নোটিশ দেন। লিগ্যাল নোটিশে কোন সম্মতি না পেয়ে ২০০২ সালের ২৫ মে যুগ্ন জেলা জজ ১ম আদালতে একটি দেওয়ানী মামলা দায়ের করেন ইউসুফ আলী। পরে মামলাটি সুপ্রিম কোর্টে যায়। 

দীর্ঘ ১৬ বছর বিচারের পর যুগ্ম জেলা জজের ৩য় আদালত গেলো ২৫ জুলাই মরহুম অধ্যাপক ইউসুফ আলীর ওয়ারিশগণের অনুকূলে রায় দেন। 

আদালতের নির্দেশে আজ মঙ্গলবার পুলিশি সহায়তায় অবৈধ ও বেআইনি দখলদার মুসা বিন শমসেরকে উচ্ছেদ করে মরহুম অধ্যাপক ইউসুফ আলীর ওয়ারিশগণের কাছে বাড়িটির দখল বুঝিয়ে দেয়া হয়। 

 

এমসি/এসএস 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়