• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

এরদোয়ানকে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৫ জুন ২০১৮, ২৩:২৩ | আপডেট : ২৫ জুন ২০১৮, ২৩:৩০
পুনর্নির্বাচিত হওয়ায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানকে অভিনন্দন জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।   

সোমবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পাঠানো এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, রিসেফ রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান আবারও  তুরস্কের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় তাকে পৃথকভাবে অভিনন্দন বার্তা পাঠিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

অভিনন্দন বার্তায় রাষ্ট্রপতি বলেন, পরবর্তী মেয়াদের জন্য তুরস্কের জনগণ আপনাকে পুনর্নির্বাচিত করায় আমি অত্যন্ত আনন্দিত। নির্বাচনে বিশাল এই সাফল্যের জন্য আপনাকে উষ্ণ অভিনন্দন জানাচ্ছি।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ আরও বলেন, ইতিহাস, সংষ্কৃতি, বিশ্বাস ও ঐতিহ্যগত কারণে আমাদের দুই দেশের মধ্যে চমৎকার দ্বি-পক্ষীয় সম্পর্ক রয়েছে। যা ভবিষ্যতেও বজায় থাকবে।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: ১২ দিনের ভাগনে হত্যার অভিযোগে মামি গ্রেপ্তার
--------------------------------------------------------

তিনি দুই দেশের সুবিধাজনক সময়ে বাংলাদেশ সফর করার জন্য এরদোয়ানকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

পৃথক বার্তায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, দেশটির প্রেসিডেন্ট পদে আপনার পুনর্নির্বাচিত হওয়ার খবর শুনে আমি খুশি হয়েছি। আমি মনে করি, এ নির্বাচন হচ্ছে, আপনার প্রতি তুরস্কের জনগণের আস্থা ও বিশ্বাসের একটি পরীক্ষা। তিনি বলেন, এ খুশির মুহূর্তে আমি ব্যক্তিগতভাবে এবং আমার সরকার ও জনগণের পক্ষ থেকে আপনাকে অভিনন্দন জানাচ্ছি।

শেখ হাসিনা বাংলাদেশ এবং তুরস্কের জনগণের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ ও ভ্রাতৃপ্রতিম সম্পর্কের উল্লেখ করে বলেন, শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে দু’দেশের মধ্যে সাংস্কৃতিক, সামাজিক ও ধর্মীয় সম্পর্ক বিরাজ করছে।

তিনি বলেন, সুফিবাদের কালোত্তীর্ণ ঐতিহ্য আমাদের দু’দেশের জনগণকে ঘনিষ্ঠ করেছে।

তিনি বলেন, ১৯২২-২৩ সালে তুরস্কের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়ে মাতৃভূমি রক্ষায় সে দেশের জনগণের বীরোচিত কর্মকাণ্ড বাংলাদেশের জনগণ গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে।

প্রধানমন্ত্রী মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের প্রতি এরদোগানের ব্যক্তিগত সহযোগিতার উল্লেখ করে এই নিপীড়িত-নির্যাতিত মানুষগুলোর প্রতি তুরস্কের ভ্রাতৃপ্রতিম জনগণ ও সরকারের ভূমিকার প্রশংসা করেন।

তিনি বলেন, তার সরকার এবং জনগণ বাংলাদেশের মাটিতে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে সহায়তার হাত বাড়িয়েছে। তিনি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহায়তায় শিগগির রোহিঙ্গা শরণার্থীরা একটি নিরাপদ পরিবেশে মিয়ানমারে ফিরে যেতে সক্ষম হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পারস্পরিক সুবিধাজনক সময়ে বাংলাদেশ সফরে আসতে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগানকে আমন্ত্রণ জানান।

আরও পড়ুন:

এমসি/ এমকে  

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়