• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

আমার কোনো বিদেশি পাসপোর্ট নেই : জয়

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৪ এপ্রিল ২০১৮, ০৯:০৪ | আপডেট : ২৪ এপ্রিল ২০১৮, ১১:০৪
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে এবং তার তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় জানালেন তার কোনো বিদেশি পাসপোর্ট নেই। সোমবার দিবাগত রাতে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে জয় এমন কথা বলেন তিনি।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান এবং খালেদা জিয়ার বড় ছেলে তারেক রহমানের পাসপোর্ট বিতর্ক যখন তুঙ্গে তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদ বলেছেন, তার কোনো বিদেশি পাসপোর্ট নেই।

নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পাতায় সজীব ওয়াজেদ লিখেছেন, ‘সবার অবগতির জন্য জানিয়ে রাখি, আমার কোনো বিদেশী পাসপোর্ট নেই। যুক্তরাষ্ট্রে আমার স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি আছে। গর্বের সাথে আমার সবুজ বাংলাদেশী পাসপোর্ট দিয়েই আমি যাতায়াত করি।’

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পাসপোর্ট বিতর্কে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সংবাদ সম্মেলনের বক্তব্য সংবলিত একটি সংবাদ নিজের ফেসবুক পেজে শেয়ার করে এসব কথা বলেন জয়।

জয় তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে আরও লিখেন, ‘বিএনপি সম্পূর্ণরূপে একটি অসৎ দলে পরিণত হয়েছে। তাদের কোনো কথাই আর বিশ্বাসযোগ্য না। এই সংবাদে আপনারা দেখতে পাবেন তারেক রহমান ও তার পরিবারের পাসপোর্টগুলোর কপি যা লন্ডনে বাংলাদেশ হাই কমিশনে হস্তান্তর করা হয়।’

শাহরিয়ার আলমকে উদ্ধৃতি দিয়ে রোববার বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে যে, বিএনপি নেতা তারেক রহমান বাংলাদেশের পাসপোর্ট হস্তান্তর করে তার নাগরিকত্ব বর্জন করেছেন।

এরপর শুরু হয় তীব্র বিতর্ক। তারেক রহমানের 'নাগরিকত্ব বর্জন' নিয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছে সেটি প্রত্যাখ্যান করে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ।

এরপর সোমবার রাতে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম তার বাসায় পাল্টা এক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্র দপ্তরের কাছে তার পাসপোর্ট হস্তান্তর করেছেন।

এদিকে বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক এবং তারেক রহমানের আইনজীবী কায়সার কামাল বলেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্য বানোয়াট এবং রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে প্রণোদিত।

এনিয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমকে লিগ্যাল নোটিস পাঠানো হয়েছে তারেক রহমানের আইনজীবীর পক্ষ থেকে।

লিগ্যাল নোটিস পেলে বিষয়টি আইনগতভাবে মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত বলে জানান পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়