তিস্তা চুক্তির বাস্তবায়ন না হওয়া ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়

প্রকাশ | ২৭ মার্চ ২০১৮, ১৩:৫২ | আপডেট: ২৭ মার্চ ২০১৮, ১৪:০৩

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

তিস্তা চুক্তির বাস্তবায়ন না হওয়া ভারতের অভ্যন্তরীণ জটিলতার বিষয়। এই জটিলতা দূর হলেই অল্প সময়ের মধ্যে চুক্তি বাস্তবায়ন হবে। ভারতের নদী গুলোকে যেন তারা ড্রেসিং করে এই বিষয়ে আমরা তাদের সঙ্গে আলোচনা করছি। পানি আর ধরে রাখতে পারবে না, কিছু পানিতো আমাদের দিতেই হবে। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বিশ্ব পানি দিবসের অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পানি সম্পদ খাতে গত পাঁচ বছরে আমরা ১৫০ কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছি। বর্তমানে আমাদের দেশে পানি নিয়ে হাহাকার নেই। বাংলাদেশে প্রায় ৮৪ শতাংশ মানুষ সুপেয় পানি পান করতে পারে। কিন্তু যত নগরায়ণ আসছে, প্রযুক্তি ব্যবহারে নদীর দূষণ বাড়ছে। অপরিকল্পিত নগরায়ণের ফলে অনেক সময় বিল, পুকুর ভরাট করে বহুতল ভবন নির্মাণ করা হয় তাই অনেক সময় প্রয়োজনীয় পানিও পাওয়া যায় না।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: আর সময় পাচ্ছে না সিএনজি-অটোরিকশা
--------------------------------------------------------

তিনি বলেন, শহরে অনেক সময় আগুন লাগলে পানি পাওয়া যায় না। আগে পান্থপথে একটা বিল ছিল। কিন্তু বিল ভরাট করে নগরায়ণ করার ফলে বসুন্ধরা শপিং মলে আগুন লাগার পর পানি পেতে কষ্ট হয়েছে। পরে সোনারগাও সুইমিং পুল থেকে পানি নিয়ে আগুন নেভানো হয়। উন্নয়নের নামে পুকুর-খাল ভরাট করা যাবে না। শিল্প-কারখানার জন্য অনেক সময় ভরাটের প্রয়োজন হলেও বিকল্প জলাধার সৃষ্টি করতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা জাতীয় পানি নীতি ১৯৯৯ প্রণয়ন করি, বাংলাদেশ পানি আইন ২০১৩ প্রণয়ন করেছি। এরইমধ্যে ৬৪ লাখ হেক্টর জমি বন্যা নিয়ন্ত্রণ এলাকায় এনেছি।

আরও পড়ুন:

জেএইচ