বিজিএমইএ ভবন ভাঙার সময় জানা যাবে মঙ্গলবার

প্রকাশ | ২৫ মার্চ ২০১৮, ১২:৩৪ | আপডেট: ২৫ মার্চ ২০১৮, ১৫:৫১

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

রাজধানীর হাতিরঝিলে অবৈধভাবে তৈরি করা বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারক সমিতি- বিজিএমইএ এর বহুতল ভবনটি ভাঙার জন্য আরও এক বছর সময় চেয়ে আবেদনের ওপর শুনানি শেষ হয়েছে।

আজ রোববার সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগ এ শুনানি শেষ করে ২৭ মার্চ মঙ্গলবার আদেশের জন্য দিন রেখেছেন।

বিজিএমইএর পক্ষে শুনানি করেন কামরুল হক সিদ্দিকী। রিটের পক্ষে ছিলেন মঞ্জিল মরসেদ।

গত বছরের ৮ এপ্রিল রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলের পূর্ব পাশে হাতিরঝিলে বিজিএমইএ'র ১৬ তলা ভবনটি ভবনটি ভাঙতে সাত মাস সময় দেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। আদেশে বলা হয়, এটাই শেষ সুযোগ। আর সময় দেওয়া হবে না। কিন্তু গত ৫ মার্চ ভবনটি ভাঙতে আরো এক বছর সময় চেয়ে আবেদন করে বিজিএমইএ কর্তৃপক্ষ।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: খালেদা জিয়ার সাজা বাড়াতে হাইকোর্টে দুদকের আপিল
--------------------------------------------------------

এর আগে গত বছরের ৫ মার্চ আপিল বিভাগ এই ভবন অবিলম্বে ভেঙে ফেলতে রায় পুনর্বিবেচনা চেয়ে (রিভিউ) করা আবেদন খারিজ করে দেন। তখন ভবন ভাঙতে কত দিন সময় লাগবে, তা জানিয়ে আবেদন করতে বলেন। বিজিএমইএ কর্তৃপক্ষ ভবন সরাতে তিন বছর সময় চেয়ে আবেদন করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ১২ মার্চ আপিল বিভাগ বিজিএমইএ'র আবেদন নিষ্পত্তি করে ছয় মাস সময় দেন।

২০১৬ সালের ২ জুন বিজিএমইএর করা লিভ টু আপিল খারিজ হয়ে যায় আপিল বিভাগে। ওই বছরের ৮ নভেম্বর বিজিএমইএ'র ১৬ তলা ভবনটি অবিলম্বে সংগঠনের নিজ খরচায় ভেঙে ফেলার পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ হলে ৮ ডিসেম্বর রিভিউ আবেদন করে বিজিএমইএ।

এর আগে ২০১১ সালের ৩ এপ্রিল বিজিএমইএ ভবন ভাঙার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। ‘হাতিরঝিল প্রকল্পে বিজিএমইএ ভবন একটি ক্যানসারের মতো’ উল্লেখ করে রায় প্রকাশের ৯০ দিনের মধ্যে ভেঙে ফেলতে এ নির্দেশ দেয়া হয়। 

এদিকে হাইকোর্টের এ রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল করে বিজিএমইএ কর্তৃপক্ষ। তবে এই লিভ টু আপিল খারিজ করে রায় ঘোষণা করেন আপিল বিভাগ। 

আরও পড়ুন: 

এসআর/সি