• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

‘বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নেয়া বন্ধ করেনি কুয়েত’

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৬ মার্চ ২০১৮, ১৮:২১ | আপডেট : ০৬ মার্চ ২০১৮, ২৩:০০
কুয়েত বাংলাদেশি শ্রমিকদের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে বলে যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে তা পুরোপুরি ঠিক নয় বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

তিনি আজ তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে জানান, কুয়েতে বাংলাদেশি শ্রমিক নেয়া বন্ধ করা হয়নি। অনেক ধরনের ভিসার মধ্যে visa 20 (খাদেম ভিসা) তে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এটা করা হয়েছে ওই ক্যাটাগরিতে শৃঙ্খলা ফেরানের জন্য। কারণ দুই দেশেরই কিছু অসাধু মানুষ এক বাড়িতে একজন খাদেমের প্রাপ্যতা থাকলেও একাধিক খাদেম আনার প্রবণতা দেখা গেছে।

গতকাল সোমবার কুয়েতে বাংলাদেশি শ্রমিকদের ওপর ফের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে বলে মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি সংবাদ মাধ্যম জানায়।

রেমিটেন্স পারমিট নিয়ে নীতি লঙ্ঘনকে এই নিষেধাজ্ঞার পেছনে বড় কারণ হিসেবে দেখানো হয় প্রতিবেদনে।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: এডিপি কমলো ৬৪৯০ কোটি টাকা
--------------------------------------------------------

নিরাপত্তা বাহিনীর এক সূত্র জানায়, সম্প্রতি বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নেয়ার প্রতি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার পর মানবপাচারকারীদের অনিয়ম ও নির্যাতনের পরিমাণ অবিশ্বাস্যভাবে বেড়ে যায়। একইসঙ্গে রেসিডেন্সি পারমিটও বেড়ে যায়।

আর সেকারণে বাংলাদেশিদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। মধ্যপ্রাচ্যের ওই সংবাদের সূত্র ধরে বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমও তা প্রকাশ করে।

এর একদিন পরই পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জানালেন,  ড্রাইভার, নির্মাণ শ্রমিকসহ অন্যান্য সব ক্ষেত্রে সবকিছু স্বাভাবিক আছে এবং থাকবে।

কুয়েত ১৯৭৬ সাল থেকে বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নিয়োগ দেওয়া শুরু করে। যা চালু ছিল ২০০৭ সাল পর্যন্ত। এই সময়ের মধ্যে প্রায় চার লাখ ৮০ হাজার শ্রমিককে নিয়োগ দেয়া হয়।

পরবর্তীতে বিভিন্ন অনৈতিক কার্যক্রমের জন্য ২০০৭ সাল থেকে শ্রমিক নিয়োগ নেয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে কুয়েত। নিষেধাজ্ঞাটি ২০১৪ সাল পর্যন্ত বহাল ছিল। ওই বছরে আবার শ্রমিক নিয়োগ দেয়া শুরু হয়।

আরও পড়ুন:

এসআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়