• ঢাকা বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

পোশাক কারখানার ৮৫% সংস্কার কাজ শেষ: অ্যালায়েন্স

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৫ নভেম্বর ২০১৭, ১৫:৪৩ | আপডেট : ১৫ নভেম্বর ২০১৭, ২১:১৫
মার্কিন ক্রেতাদের জোট অ্যালায়েন্সভুক্ত কারখানাগুলোর ৮৫ শতাংশ সংস্কার কাজ শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছে জোটটি। এর মধ্যে ৮০ শতাংশ কাজে সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকার দেয়া হয়। 

আজ বুধবার অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি ইন বাংলাদেশ তাদের চতুর্থ বার্ষিক অগ্রগতি প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। 

রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে এক সংবাদ সম্মেলনে জোটটি এ তথ্য প্রকাশ করে। 

প্রতিবেদনে বলা হয়, অ্যালায়েন্সের সদস্য ৭৮৫টি  পোশাক কারখানার মধ্যে ২৩৪টি কারখানা অগ্নি, বৈদ্যুতিক ও ভবনের কাঠামোগত সব ধরনের ত্রুটি সংশোধন কর্মপরিকল্পনা (ক্যাপ) অনুযায়ী সংস্কার কাজ শেষ করেছে। তবে সংস্কারকাজে সন্তোষজনক অগ্রগতি না হওয়ায় ১৬২টি কারখানার সঙ্গে ব্যবসায়িক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে অ্যালায়েন্স। 

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, অ্যালায়েন্সের ৬৫৮টি সদস্য কারখানায় কাজ করেন ১৩ লাখ ৮৯ হাজার ৫৬৬ পোশাকশ্রমিক। তাদের মধ্যে অধিকাংশকেই প্রাথমিক অগ্নি নিরাপত্তা বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। প্রায় ২৭ হাজার নিরাপত্তা কর্মীকে অগ্নি নিরাপত্তা বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিয়েছে অ্যালায়েন্স। এ ছাড়া শ্রমিকদের জন্য হেল্পলাইন চালু করা হয়েছে। ইতিমধ্যে সেই হেল্পলাইনে নিজেদের সমস্যা ও অভিযোগ জানাতে পারছেন।

জেমস এফ মরিয়ার্টি বলেন, ‘২০১৩ সালে অ্যালায়েন্স কাজ শুরু করে। সেই সময়ের তুলনায় পোশাক কারখানাগুলো আজ অনেক বেশি নিরাপদ। কারখানা মালিকেরা যে কঠোর পরিশ্রম করছেন তার সুফল তারা এখন পাচ্ছেন।’ 

তিনি আরও বলেন, কারখানাগুলো যে আন্তর্জাতিক মান অর্জন করেছে তা অব্যাহত রাখতে হবে। আগামী বছর অ্যালায়েন্সের কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে শেষ হবে। তখন স্থানীয় কর্তৃপক্ষের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করা হবে। তবে যেই দায়িত্ব নিক না কেন তাকে অবশ্যই স্বাধীন ও গ্রহণযোগ্য হতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন অ্যালায়েন্সের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ স্কট লারসেল, ডেপুটি ডিরেক্টর পল রিগবি, ডিরেক্টর অব অপারেশনস কামরুন্নেসা বাবলি।

২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল সাভারের রানা প্লাজা ধসের পর বাংলাদেশের তৈরি পোশাক কারখানার নিরাপত্তা ও কর্মপরিবেশ নিয়ে বড় ধরনের প্রশ্ন ওঠে। তখন কর্মপরিবেশ উন্নয়নে পাঁচ বছরের জন্য ইউরোপীয় ক্রেতাদের জোট অ্যাকর্ড ও উত্তর আমেরিকার ক্রেতাদের জোট অ্যালায়েন্স গঠিত হয়। 

 

এসআর

 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়