close
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৭ | ০২ কার্তিক ১৪২৪

বৃষ্টির অজুহাতে বাড়ছে চাল ও মশলার দাম (ভিডিও)

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২১ এপ্রিল ২০১৭, ১৭:২৬ | আপডেট : ২১ এপ্রিল ২০১৭, ১৯:৪৯
মৌসুমী বৃষ্টির কারণে বাড়ছে চাল ও মশলার দাম। পাশাপাশি সবজির দাম না বাড়লেও বেড়েছে মুদি পণ্যের দাম। ব্যবসায়ীরা বলছেন, মৌসুম পরিবর্তনের কারণেই দাম বাড়িয়ে দিচ্ছেন আড়ৎদাররা। এর প্রভাব পড়ছে খুচরা বাজারে। ক্রেতারা বলছেন, বিক্রেতারা নানা অজুহাতে দাম বাড়িয়ে দেয় সবসময়। শুক্রবার রাজধানীর কয়েকটি বাজার ঘুরে  এমন চিত্র দেখা যায়।

প্রায় সব ধরনের চালে ৫-৬ টাকা বেড়েছে। কেজিপ্রতি মোটা স্বর্ণা চাল ৪২ টাকা, পারিজা চাল ৪২-৪৩ টাকা, মিনিকেট ৪২-৪৮ টাকা, নাজিরশাইল  ৫২-৫৬ টাকা, বাসমতি ৫৬ টাকা, কাটারিভোগ ৭৪-৭৬ টাকা এবং পোলাও চাল ৭৫-১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া ভারতীয় রসুন ১০ টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০০ টাকা। যা আগে বিক্রি হতো ১৯০ টাকা। ১০ টাকা বেড়ে মসুর ডাল ১৩০ টাকা,  ৫ টাকা বেড়ে ভারতীয় মসুর ডাল ১০০ টাকা,  ১৫ টাকা বেড়ে দেশি মুগ ডাল ১২০ টাকা, ১০ টাকা বেড়ে ভারতীয় মুগ ডাল ১১০ টাকা, ৫ টাকা বেড়ে মাসকলাই ১৩৫ টাকা এবং ১০ টাকা বেড়ে ছোলার ডাল ৯০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। পেঁয়াজের দাম কেজিপ্রতি ৪-৬ টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩২ টাকায়। ভারতীয় পেঁয়াজ কেজিতে ৬ টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৬ টাকা । রসুনের দাম মানভেদে কেজিতে ১০-২০ টাকা  বেড়ে ১২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।  যা গেল সপ্তাহে ছিল ১০০ টাকা।

মুদি পণ্যের বাজার ঘুরে দেখা গেছে, আজকের বাজারে ৫ লিটারের বোতল ব্র্যান্ড ভেদে ৫০০ থেকে ৫১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া প্রতি লিটার ভোজ্য তেল ১০০ থেকে ১০৬ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

গরুর মাংস প্রতি কেজি ৪৮০ থেওকে ৫০০ টাকা, খাসির মাংস প্রতি কেজি ৭০০ থেকে ৭৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৬৫ টাকা, লেয়ার মুরগি ১৮০ টাকা, দেশি মুরগি ৪০০ টাকা, কথিত পাকিস্তানি লাল মুরগি ২৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

কাঁচা বাজার ঘুরে দেখা গেছে, সব সবজি আগের বাড়তি দামেই বিক্রি হচ্ছে। বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, প্রতি কেজি সাদা বেগুন ৬০ টাকা, কালো বেগুন ৫০ টাকা, শিম ৫০ থেকে ৫৫ টাকা, শশা ৪৫ থেকে ৫০ টাকা, গাজর ৫০ টাকা, চাল কুমড়া ১৫ টাকা, কচুর লতি ৬০ টাকা, পটল ৫০ টাকা, ঢেঁড়স ৫০ টাকা, ঝিঙ্গা ৬০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, করলা ৬০ টাকা, কাকরোল ৬০ টাকা, কচুরমুখী ৭০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৬০ টাকা, টমেটো ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ফুলকপি প্রতিটি ৪০ টাকা, বাঁধাকপি ৪০ টাকা, এছাড়া কেজিপ্রতি আলু ২০ টাকা, পেঁপে ১৫ থেকে ২৫ টাকার মধ্যে বিক্রি হচ্ছে। লেবু হালি প্রতি ২০ থেকে ৪০ টাকা, পালং শাক আঁটি প্রতি ১৫ টাকা, লালশাক ১৫ টাকা, পুঁইশাক ২০ টাকা এবং লাউশাক ২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

পাঙ্গাস প্রতি কেজি ১৩০-১৮০ টাকা, টেংরা ৬০০ টাকা, মাগুর ৬০০-৮০০ টাকা, প্রকার ভেদে চিংড়ি ৪০০-৮০০ টাকা, প্রতি কেজি রুই মাছ ২৫০-৩৫০ টাকা, সরপুঁটি ৩৫০-৪৫০ টাকা, কাতলা ৩৫০-৪০০ টাকা, তেলাপিয়া ১৪০-১৮০ টাকা, চাষের কৈ ২০০-২৫০ টাকা, সিলভার কার্প ১৫০-২০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এমসি/সি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়