• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

বঙ্গবন্ধুর ঘোষণায় শুরু হয় যুদ্ধের প্রস্তুতি

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৬ মার্চ ২০১৭, ০৯:২৬ | আপডেট : ২৬ মার্চ ২০১৭, ১৭:০০
রক্তস্নাত মুক্তিযুদ্ধের সূচনার দিন আগুনঝরা একাত্তরের ২৬ মার্চ। পাকিস্তানি ঔপনিবেশিক দুঃশাসন আর শোষণ-বঞ্চনার অভিশাপ থেকে মুক্ত হওয়ার দিন। দেশকে হানাদার বাহিনীর কবল থেকে মুক্ত করার ডাক আসে এদিন।

আর তাই এ দিনটি বাঙালির ইতিহাসে মহান স্বাধীনতা দিবস নামে স্বরণীয় হয়ে থাকবে আজীবন।

২৫ মার্চ রাতের অপারেশন সার্চলাইট পাল্টে দেয় পুরো ঢাকা শহরের চিত্র। চারদিকে শুধু লাশ আর পুড়ে যাওয়া ঘরবাড়ি। রক্তাক্ত শহরের মানুষগুলো যেন আর্তনাদ করতেও ভুলে যায়। স্বজনের লাশ নিয়ে শুধু তাকিয়ে থাকে।    

২৬ মার্চ সকালে শুরু হয় অপারেশন সার্চলাইটের দ্বিতীয় অধ্যায়। দ্য পিপলস, সংবাদ, ইত্তেফাক ও বাংলার বানী অফিস গুঁড়িয়ে দেয় পাকিস্তানিরা। ধ্বংসস্তুপে পরিনত করে বাঙালির প্রতিবাদের মূর্তপ্রতীক ভাষা শহীদের স্মৃতির মিনার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার। 

২৬ মার্চ প্রথম প্রহরে পাকবাহিনীর হাতে গ্রেপ্তার হওয়ার ঠিক আগ মুহূর্তে ধানমন্ডির বাসভবন থেকে স্বাধীনতার ঘোষণা দেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

বঙ্গবন্ধু বলেন, ‘পাকিস্তান সেনাবাহিনী অতর্কিত পিলখানার ইপিআর ঘাঁটি, রাজারবাগ পুলিশ লাইন আক্রমণ করেছে এবং শহরের লোকদের হত্যা করছে। সর্বশক্তিমান আল্লাহর নামে আপনাদের কাছে আমার আবেদন ও আদেশ, দেশকে স্বাধীন করার জন্য শেষ রক্তবিন্দু থাকা পর্যন্ত যুদ্ধ চালিয়ে যান।’

পরবর্তীতে এ ঘোষণা সারা বাংলায় ছড়িয়ে দিতে ২৭ মার্চ কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে বঙ্গবন্ধুর পক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ঘোষণা পাঠ করেন মেজর জিয়াউর রহমান।

স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে এ ঘোষণা নিয়ে শুরু হওয়া বিতর্ক ৪২ বছরেও থামেনি। কিন্তু সেদিন বেতারে সম্প্রচারিত এ ভাষণের অকাট্য দালিলিক প্রমাণই সত্যকে জানান দেয়।

একাত্তরের এ দিনে করাচিতে বেতার ভাষণে ইয়াহিয়া খান বলেন, ‘পূর্ব পাকিস্তানে সরকারকে ক্ষমতায় পুন:প্রতিষ্ঠা করতে সেনাবাহিনীকে আদেশ দেয়া হয়েছে। তিনি দেশের সংহতি ও সার্বভৌমত্বের ওপর আঘাত হেনেছেন। তাই এ মুহূর্ত থেকে মুজিব ও তার দল নিষিদ্ধ ঘোষিত হলো।’

পরবর্তীতে প্রতিরোধের সব আয়োজন চুড়ান্ত করে বাঙালি এগিয়ে যায় স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের দিকে। যুদ্ধজয়ের মধ্য দিয়ে বিশ্বের মানচিত্রে জানান দেয় লাল-সবুজের বাংলাদেশ।

এফএস/

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়